রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৯:২০ অপরাহ্ন

ইউরোতে রোনালদো’র চির বিদায়!

ইউরোতে রোনালদো’র চির বিদায়!

দেশের জার্সি গায়ে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে হয়তো শেষ ম্যাচ খেলে ফেললেন বিশ্বের সর্বকালের অন্যতম সেরা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। আর হয়তো দেশের জার্সি গায়ে ইউরোপের এই মর্যাদাপূর্ণ আসরে খেলা হবে না তার। কারণ পরের আসর যখন মাঠে গড়াবে তখন রোনালদোর বয়স হবে ৩৯!

অন্যদিকে, নিজের শেষ ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপে শতচেষ্টা করেও পর্তুগালকে সাফল্য এনে দিতে ব্যর্থ হয়েছেন রোনালদো। রোনালদো ছাড়া যে পর্তুগাল একেবারে সাদামাটা, তার প্রমাণ যেন ফুটবল বিশ্ব আবার পেল। শেষ ষোলোয় উঠার আগ পর্যন্ত পর্তুগাল প্রতিপক্ষের জালে বল জড়িয়েছে মোট ৭ বার, যার ৬ টি গোলই এসেছে রোনালদো’র কারণে। ৫টি নিজে করেছেন, ১ সতীর্থকে দিয়ে করিয়েছেন। গতকাল রোনালদো’র গোল না পাওয়ার দিনে শেষ ১৬’তেই থামতে হলো ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন পর্তুগালকে। রোনালদোদের ১-০ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে বেলজিয়াম। বেলজিয়ামের হয়ে ম্যাচ নির্ধারণী গোলটি করেছেন থোরগান হ্যাজার্ডের। দূরপাল্লার এক জাদুকরী শটে গোল করে বেলজিয়াম কে জয় উপহার দেন এই তরুণ খেলোয়াড়।

বেলজিয়াম জয় পেলেও পুরো ম্যাচে দুর্দান্ত পারফর্ম করেছে পর্তুগাল। কিন্তু বিধাতা যেন এদিন মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিল পর্তুগালের ওপর থেকে। পুরো ম্যাচে পর্তুগালের গোলবারে ৬ শট নিয়েছে বেলজিয়াম। যার মধ্যে মাত্র ১ টি অনটার্গেট। অপরদিকে বেলজিয়ামের গোলবারে পর্তুগাল শট নিয়েছে ২৪ টি। গোল মিসের মহড়ার সাথে গোলপোষ্টে বল লেগেও ফিরে গেছে একবার। এ যেন কোনোভাবেই মেনে নিতে পারেনি পর্তুগাল ভক্তরা।

বেলজিয়াম ম্যাচের শুরুতেই গোল হজম করে পিছিয়ে যেতে পারতো। তবে ডিয়েগো জোটার সহজ সুযোগ হাতছাড়া করায় বেঁচে যায় বেলজিয়াম। তখন ম্যাচের মাত্র ছয় মিনিট। মধ্যমাঠে বল জিতে তা বাঁ দিকে থাকা ডিয়েগো জোটার দিকে বাড়িয়ে দেন সানচেজ। ডি-বক্সের ভেতর জায়গা করে শট নিলেও তা লক্ষ্যে রাখতে ব্যর্থ জোটা। আর তাতেই ম্যাচের শুরুতেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ হাতছাড়া ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের।

২৫তম মিনিটে থমাস ভারমালিনের হ্যান্ডবলে বেলজিয়ামের ডি-বক্সের কিছুটা সামনেই ফ্রিকিক পায় পর্তুগাল। ২০ গজ দূর থেকে বেলজিয়ামের রক্ষণ দেওয়াল ভেদ করে দুর্দান্ত এক শট নেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। তবে থিবো কোর্তোয়ার বিশ্বস্ত হাত ফাঁকি দিতে পারেননি। রোনালদোর জোরালো ফ্রিকিক কোর্তোয়া রুখে দিলেও ফিরতি বল ডি-বক্সের ভেতরেই বল পেয়ে যান পালিনহা। ডি-বক্সে বল পেয়ে হেড করলেও তাতে ছিল না পর্যাপ্ত শক্তি তাই তো সহজেই তা তালুবন্দি করলেন বেলজিয়ান গোলরক্ষক।

ম্যাচের ৩৭তম মিনিটে এসে গোলের দুর্দান্ত এক সুযোগ পায় বেলজিয়াম। কেভিন ডি ব্রুইনের সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করে ডান দিক দিয়ে পর্তুগালের ডি-বক্সে ঢুকে পড়ে দারুণ এক শট নেন থমাস মুনিয়ের। তবে তাঁর নেওয়া শট বাঁ দিক দিয়ে পর্তুগিজ গোলরক্ষক রুই প্যাট্রিসিওর হাতের নাগালের বাইরে দিয়ে বেরিয়ে যায়।

প্রথমার্ধ শেষের ঠিক মিনিট তিনেক আগে থমাস মুনিয়েরের কাছ থেকে বল পেয়ে ডান পায়ের জোরালো শটে ডি-বক্সের প্রায় ২০ গজ দূর থেকে শট করেন থোরগান হ্যাজার্ড। আর তাতেই পর্তুগিজ গোলরক্ষক রুই প্যাট্রিসিও হতবাক। যেন বুঝতেই পারেননি এমন একটি শট নিবেন থোরগান। তবে তিনি শট তো নিলেনই সঙ্গে প্যাট্রিসিওকে বাঁকানো বলে পরাস্ত করে বেলজিয়ামকে এগিয়ে নিলেন ১-০ গোলের ব্যবধানে।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই খোঁড়াতে থাকা ডি ব্রুইনকে তুলে নেন বেলজিয়ান ম্যানেজার রবার্তো মার্টিনেজ। প্রথমার্ধের শেষ সময়ে পর্তুগিজ মিডফিল্ডার পালিনহার ট্যাকেলে ব্যাথা পেয়েছিলেন তিনি। এক গোলে পিছিয়ে থাকায় ম্যাচে ফিরতে দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই মরিয়া হয়ে খেলতে থাকে রোনালদোরা। ৫৯তম মিনিটে ডান দিকে থেকে বল সংগ্রহ করে ডি-বক্সের ঠিক সামনে থাকা ডিয়েগো জোটার উদ্দেশে বল বাড়ান রোনালদো। দুই ডিফেন্ডারের মধ্য থেকে জায়গা করে বলে শট নিতে পারলেও তা ক্রসবারের ওপর দিয়ে বেরিয়ে গেলে আরও একটি সহজ সুযোগ হাতছাড়া হয় পর্তুগালের।

জোটার দুর্দান্ত সুযোগ হাতছাড়া করার মিনিট দুই পরে জাও ফেলিক্সের দারুণ এক হেডার রুখে দেন কোর্তোয়া। এরপর ম্যাচের ৭০-৮০ এই ১০ মিনিটে কয়েকটি ফাউলের ঘটনায় ম্যাচে উত্তেজনা ছড়ায়। পর্তুগালের এক ও বেলজিয়ামের দুজন হলুদ কার্ডও দেখেন। পরপর দুই মিনিটে দারুণ দুটি সুযোগ পায় পর্তুগাল। তবে রুবেন ডিয়াজের হেড গোলরক্ষক ফেরানোর পর রাফায়েল গুয়েরোর শট বাধা পায় পোস্টে।

ম্যাচের শেষ সময়টুকু কেবল আক্রমণই করে যায় পর্তুগাল। তবে কিছুতেই বেলজিয়ামের জমাট বাধা রক্ষণে ফাটল ধরাতে পারেনি রোনালদো-ব্রুনো ফার্নান্দেজরা। শেষ পর্যন্ত থোরগান হ্যাজার্ডের দুর্দান্ত ওই গোলটিই পার্থক্য গড়ে দেয় ম্যাচটির। আর ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন পর্তুগালকে বিদায় করে কোয়ার্টারের টিকিট কাটে বেলজিয়াম। কোয়ার্টার ফাইনালে আগামী শনিবার (৩ জুলাই) বাংলাদেশ সময় রাত একটায় ইতালির মুখোমুখি হবে বেলজিয়াম।

এদিকে, শেষ ষোল থেকে দল বিদায় নিলেও ব্যক্তিগত অর্জনের দিক দিয়ে রোনালদো কাটিয়েছেন নিজের সেরা টুর্নামেন্ট। গ্রুপ পর্বের প্রথম ম্যাচে তিনি গড়েন ইউরোর সর্বোচ্চ গোলদাতার রেকর্ড, সর্বাধিক ম্যাচ খেলার রেকর্ড। জালের দেখা পান পরের ম্যাচেও। আর শেষ রাউন্ডে জোড়া গোল করে স্পর্শ করেন আন্তর্জাতিক ফুটবলে আলি দাইয়ের ১০৯ গোলের বিশ্ব রেকর্ড।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2021 BD SUNRISE