কেরানীগঞ্জে দুই সন্তানের জননীকে কাজের কথা বলে ডেকে এনে ধর্ষণ

মোঃ আল আমিন, কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০২:৩৭ PM, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

কেরানীগঞ্জের মডেল টাউন এলাকায় গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় (৩৮)এক নারী কর্মীকে ধর্ষণ করেছে বলে হালিম (৩৮) নামে এক ঠিকাদারের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ঠিকাদার হালিম টাইলস পরিষ্কার কথা বলে ডেকে এনে এ ধর্ষণ করেছে বলে জানা যায়।

এলাকাবাসী ধর্ষক হালিমকে গণপিটুনি দিয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশের হাতে হস্তান্তর করেছেন। অভিযুক্ত আসামির বিরুদ্ধে থানায় একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছে।

ধর্ষক হালিম পটুয়াখালী জেলার বাউফল থানার মৌসাদি গ্রাম থেকে এসে কেরানীগঞ্জের মডেল টাউন এলাকায় একটি ম্যাচ বাসায় ভাড়া থেকে বিল্ডিংয়ের ঠিকাদারি করেন। এদিকে ধর্ষিতা নারী দুই সন্তানের জননী।

সূত্র জানায়, হালিম দীর্ঘদিন ধরে মডেল টাউন এলাকায় বেশ কয়েকটি বাড়িতে কনস্ট্রাকশনের ঠিকাদারি কাজ করেন। রাজমিস্ত্রির থেকে শুরু করে বিল্ডিং এর কাজ এর জন্য জনশক্তি হিসেবে কর্মী ভাড়া করে কাজ করান। গতকাল এক নারীকে টাইলস পরিষ্কার এর কাজের কথা বলে ডেকে এনে ধর্ষণ করেছেন।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার কলাতিয়া পুলিশ ফাঁড়ির (এস.আই) উপ-পুলিশ পরিদর্শক নয়ন জানান, মুঠো ফোনে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকাবাসীর মুখে জানতে পেরেছি হালিম ১ টাইলস পরিষ্কার কর্মীকে ধর্ষণ করেছেন। এলাকাবাসী ধর্ষক হালিমকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

ধর্ষণের ঘটনাটি সত্য কিনা তা তদন্তের জন্য ধর্ষিতা নারীকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করলে ধর্ষণের আলামত পাওয়া যায়।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, মডেল টাউন এলাকায় ধর্ষণের ঘটনাটি সত্য, ধর্ষণকারীকে গ্রেফতার করে ধর্ষণ মামলা দেয়া হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :