বন্যায় গোয়ালন্দে ট্রেন চলাচল বন্ধ, ফেরি ঘাট হুমকির মুখে

মইনুল হক মৃধা, রাজবাড়ী
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ১১:৫৪ AM, ২৭ জুলাই ২০২০

দক্ষিন পশ্চিমাঞ্চলের প্রবেশদ্বার রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দে উপজেলার দৌলতদিয়া পদ্মা নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। নদীর পানি বৃদ্ধির কারনে গোয়ালন্দ ঘাট রেলওয়ের লাইন পানিতে ডুবে যাওয়ায় সকল প্রকার ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। এদিকে দৌলতদিয়া ৩ নং ফেরি ঘাটের সংযোগ সড়কে পানিতে তলিয়ে গেছে পানির মধ্যে দিয়ে গাড়ি চলাচল করছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড ও ঘাট সূত্রে জানাযায় , ২৬ জুলাই রবিবার গত ২৪ ঘন্টায় পদ্মার পানি ৫ সে: মি: বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ১১৫ সে: মি : উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

পানি বৃদ্ধির ফলে গোয়ালন্দে তোরাপ শেখের পাড়া এলাকায় রেল লাইনের রাস্তা পানিতে ডুবে গেছে। গত ২১ জুলাই থেকে বাজার ষ্টেশন টু গোয়ালন্দ ঘাট রেলওয়ের চলাচল সাময়িক ভাবে বন্ধ করলেও ২৬ জুলাই থেকে গোয়ালন্দ ঘাটের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক ভাবে সকল প্রকার ট্রেন চলাচল বন্ধ ঘোষনা করেছে রেলওয়ে কতৃপক্ষ।

এদিকে দেশের বৃহত্তম ফেরিঘাট দৌলতদিয়ায় ৬ টি ঘাটের মধ্যে গত বছর নদী ভাঙ্গনে ১ ও ২ নং ফেরি ঘাট বিলিন হয়ে গেলেও আজ পর্ষন্ত ঘাট দুই টি সচল হয়নি। ৪ টি ঘাট দিয়ে গাড়ি পারাপার করছে এর মধ্যে ৩ নং ঘাটের সংযোক সড়ক পানিতে ডুবে গেছে। পানির মধ্যেই গাড়ি ফেরিতে উঠছে।

৬ নং ঘাটের অবস্থাও ঝুকি পুর্ন, যে কোন সময় ৩ ও ৬ নং ঘাট বন্ধ হয়ে যেতে পারে। নতুন একটি ঘাট নিমার্নের কাজ চলছে ধীর গতিতে। ঈদের সামনে ঘাটে পশু বোঝাই ট্রাক ও অতিরিক্ত গাড়ির চাপ বেড়েছে।

ঘাটে রয়েছে ফেরি সংকট। ৬ টি ফেরি ঘাট চালু না থাকায় এবং ফেরি সংকটে যে কোন সময় রড় ধরনের দুভোর্গ সৃষ্টি হতে পারে। ফেরি সংকট থাকায় গত কয়েক দিন ঘাটে যানবাহন দীর্ঘ লাইন দিয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করে ফেরি পারাপার হচ্ছে।

গোয়ালন্দ ঘাট রেলওয়ের ষ্টেশন মাষ্টার মো. আ. জলিল বলেন, নদীর পানি বৃদ্ধির কারনে রেল লাইনের রাস্তায় কয়েক টি স্থান ডুবে গেছে, পানি কমলে রাস্তা মেরামত করে পুনরায় ট্রেন চলাচল শুরু হবে।

বি,আই, ডাব্লিউ, টি, এর আরিচা অঞ্চলের উপ- সহকারী প্রকৌশলী মো. শাহ আলম বলেন, পদ্মা নদীর পানি কয়েক দিন ধরে বৃদ্ধি পাচ্ছে।

পানি বেড়ে যাওয়ার কারনে ৩ নং ঘাটের সংযোগ সড়ক ডুবে গেছে , আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি ফেরিঘাট গুলো সচল রাখতে , এবং বিকল্প হিসাবে নতুন একটি ঘাট নিমার্নের কাজ চলছে ।

আপনার মতামত লিখুন :