শুক্রবার, ২৫ Jun ২০২১, ০৮:০০ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
ইভ্যালি-আলেশা মার্টসহ ১০টি প্রতিষ্ঠানে কেনাকাটায় ব্র্যাক ব্যাংকের নিষেধাজ্ঞা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের শর্তসাপেক্ষে ২য় বর্ষে প্রমোশন গুলশানে‌ ফ্ল্যাট থেকে তরুণীর লাশ উদ্ধার, বসুন্ধরা গ্রুপ এর এমডি তানভীর এর বিরুদ্ধে মামলা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার তারিখ আবারও পেছালো কক্সবাজারে বিনোদনে নতুন মাত্রা যোগ করেছে কায়াকিং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা স্থগিত ঢাকায় বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করছে কোটিপতির সুন্দরী মেয়েরা ফুল আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন নজরুল মন্ডল টানা তিবারের (হ্যাট্রিক) কাউন্সিলর নাসির উদ্দিন রনি নির্বাচিত গোয়ালন্দ পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নজরুল মন্ডলের জয়লাভ
বর্ষাকালে দৌলতদিয়ায় জেলের জালে ২৫ কেজির পাঙ্গাশ

বর্ষাকালে দৌলতদিয়ায় জেলের জালে ২৫ কেজির পাঙ্গাশ

রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া পদ্মা নদীতে জেলের জালে ধরা পড়লো ২৫ কেজি ২০০ গ্রাম ওজনের একটি পাঙ্গাশ মাছ।

২১ জুলাই রোজ মঙ্গলবার দৌলতদিয়া পদ্মা নদীতে ভোরে জয়নাল হালদারের জালে চর কর্নেশন এলাকায় বিশাল আকৃতির একটি পাঙ্গাশ মাছ টি ধরা পড়ে, সেখান থেকে দুলাল মন্ডলের আড়ৎ এ ওয়াকশনে ( নিলামে ) মৎস্য ব্যবসায়ী মো. চান্দু মোল্লা প্রতি কেজি ১২শত টাকা ধরে মাছ টি কিনে নেয়। বর্ষার ভারী মৌসুমে এ বছরে এত বড় পাঙ্গাশ মাছ জয়নাল হালদারের জালে প্রথম ধরা পড়েছে।

জয়নাল হালদার বলেন, বন্যার পানি বৃদ্ধি পাওয়ার কারনে গত কয়েক দিন তেমন মাছ ধরা পড়ে নাই। আজ ভোরে জেলেদের কে সঙ্গে নিয়ে পদ্মা নদীর ভাটিতে চর কর্নেশন এলাকায় জাল ফেললে পাঙ্গাশ মাছ টি ধরা পড়ে, সাথে কয়েক টি ছোট মাছ জালে উঠে। এত রড় পাঙ্গাশ মাছ কয়েক বছরের মধ্যে আমার জালে ধরা পড়ে নাই, মাছ টি ধরা পড়ায় আমার নৌকার জেলেরা ভিশন খুশি। মাছ টি পেয়ে তাজা অবস্থায় দৌলতদিয়া মৎস্য আড়ৎতে নিয়ে আসি।

দৌলতদিয়া ঘাট মৎস্য ব্যবসায়ী চান্দু মোল্লা বলেন , প্রতি কেজি ১২শত টাকা ধরে মোট ৩০ হাজার দুইশত চল্লিশ টাকা দিয়ে পাঙ্গাশ মাছ টি আড়ৎ থেকে ওয়াকশনে ( নিলামে ) কিনেছি। এখন কেজি প্রতি ৫০ / ১০০ টাকা লাভ থাকলে মাছ টি বিক্রি করে দিবো।

মাছ টি তাজা রাখার জন্য দৌলতদিয়া ৬ নং ফেরি ঘাটের পল্টুনের সাথে রশি দিয়ে বেধে রেখেছি। সৌখিন মাছ ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে মোবাইলে ছবি তুলে পাঠিয়ে দিয়েছি, তবে খুলনার এক ব্যবসায়ী মাছ টি কিনার জন্য ফোন দিয়েছে। উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. রেজাউল শরীফ বলেন, মিঠা পানির সু স্বাদু ২৫ কেজি ২০০ গ্রাম ওজনের পাঙ্গাশ মাছ খুব কম ধরাপড়ে।

আসলে অস্বাভাবিক, এ মাছ গুলো হারিয়ে যাচ্ছে। হারানো প্রজাতির নদীর পাঙ্গাশ মাছের জন্য পদ্মা নদীতে অভয়াশ্রম করলে আগামী প্রজম্মের জন্য মাছ গুলো ধরে রাখা যেতো।

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2021 BD SUNRISE