শুক্রবার, ২৫ Jun ২০২১, ০৭:৩৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
ইভ্যালি-আলেশা মার্টসহ ১০টি প্রতিষ্ঠানে কেনাকাটায় ব্র্যাক ব্যাংকের নিষেধাজ্ঞা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের শর্তসাপেক্ষে ২য় বর্ষে প্রমোশন গুলশানে‌ ফ্ল্যাট থেকে তরুণীর লাশ উদ্ধার, বসুন্ধরা গ্রুপ এর এমডি তানভীর এর বিরুদ্ধে মামলা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার তারিখ আবারও পেছালো কক্সবাজারে বিনোদনে নতুন মাত্রা যোগ করেছে কায়াকিং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা স্থগিত ঢাকায় বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করছে কোটিপতির সুন্দরী মেয়েরা ফুল আর ভালোবাসায় সিক্ত হলেন নজরুল মন্ডল টানা তিবারের (হ্যাট্রিক) কাউন্সিলর নাসির উদ্দিন রনি নির্বাচিত গোয়ালন্দ পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী নজরুল মন্ডলের জয়লাভ
ঢাকা মেডিকেলে দুর্নীতির অভিযোগ সঠিক নয়: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ঢাকা মেডিকেলে দুর্নীতির অভিযোগ সঠিক নয়: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা রোগীদের সেবায় নিয়োজিত চিকিৎসকদের থাকা-খাওয়ার বিষয়ে দুর্নীতির যে অভিযোগ উঠেছে তা সঠিক নয়। বললেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

মঙ্গলবার (৩০ জুন) জাতীয় সংসদে আইন মন্ত্রণালয়ের মঞ্জুরি দাবির ওপর ছাঁটাই প্রস্তাবে সংসদ সদস্যদের বক্তব্যের জবাব দিতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শুরু হওয়া সংসদের বৈঠকে এ সময় প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা শেখ হাসিনা উপস্থিত ছিলেন। ছাঁটাই প্রস্তাব নিষ্পত্তি শেষে মঙ্গলবার ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট পাস হয়।

জাহিদ মালেক বলেন, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসকদের থাকা-খাওয়ার বিষয় নিয়ে যে কথা হয়েছে আমি খোঁজ নিয়েছি। কাল রাতে আমি এটা দেখেছি। ৫০টি হোটেল ভাড়া হয়েছে। সেখানে তিন হাজার ৭শ’ মানুষ এক মাস থেকেছেন। প্রত্যেকটি রুমের ভাড়া ১১০০ টাকা। খাওয়ার খরচ যেটা বলা হয়েছে তা টোটালি রং। সেখানে দিনের তিনটি মিলের জন্য ৫০০ টাকা খরচ হয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের আগে জাতীয় পার্টির এমপি পীর ফজলুর রহমান বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ডাক্তারদের খাবার বিল নিয়ে সংসদে কথা বলেছেন। সেখানে একটি কলার দাম দুই হাজার টাকা, একটি ডিমের দাম এক হাজার টাকা। একটি ব্রেডের এক স্লাইসের দাম তিন হাজার টাকা, দুই স্লাইস ছয় হাজার টাকা। করোনাকালেও স্বাস্থ্য খাতে এ অবস্থা।’

জিম্বাবুয়ের স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে পিপিই ও কিট কেনায় দুর্নীতির দায়ে গ্রেফতার করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘করোনাকালে এসে আমাদের এই রুগ্ন স্বাস্থ্য ব্যবস্থার দুরবস্থা। মানুষ বলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় নাকি মীনা কার্টুনে পরিণত হয়েছে। মীনা কার্টুনের টিয়া পাখি (মিঠু) দিয়ে চলছে এই মন্ত্রণালয়।’

পীর ফজলুর রহমান বলেন, এলাকায় গেলে মানুষেরা আমাকে অনুরোধ করেন আমি যেন সংসদে গিয়ে বলি স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে অন্য কোনও দায়িত্ব দিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়টাকে সাবেক মন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীর কাছে হস্তান্তর করতে। আমি প্রধানমন্ত্রীকে মানুষের এই কথাটা নিবেদন করলাম।’

শেয়ার করুন

© All rights reserved © 2021 BD SUNRISE